-->

সেনাবাহিনী নামাতে হবে কিনা | বাংলাদেশে ভাইরাস আতংক | কি হতে যাচ্ছে দেশে

উন্নয়নশীল দেশ হওয়া ছাড়াও দীর্ঘ দিন অনুন্নত এবং অশিক্ষিত থাকার দরুণ সবকিছু সম্পর্কে অবহেলা এবং অসচেতনতা আমাদের রক্তের সাথে মিশে গেছে যেন

উন্নয়নশীল দেশ হওয়া ছাড়াও দীর্ঘ দিন অনুন্নত এবং অশিক্ষিত থাকার দরুণ সবকিছু সম্পর্কে অবহেলা এবং অসচেতনতা আমাদের রক্তের সাথে মিশে গেছে যেন।যার কারণে সমূহ মৃত্যুর কথা জেনেও তা স্বচক্ষে দেখার আগ পর্যন্ত আমাদের টনক নড়ছে না।

সেনাবাহিনী নামাতে হবে কিনা


তাই বলে অসচেতন এই জাতিকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেয়াটা হবে মনুষ্যত্বের জন্য লজ্জাজনক।যারা সচেতন এবং শিক্ষিত তারা যতটুকু পারছেন সচেতনতা ছড়াচ্ছেন।কিন্তু অনলাইন আর আশেপাশের মানুষ ছাড়া প্রত্যন্ত অঞ্চলে বা শহরের নিম্ন শ্রেণীর মানুষগুলোর মাঝে ারা পৌঁছতে পারে না।আবার অনেক গর্দভেরা সব জেনে বুঝেও তা নিয়ে ট্রল করছে।একদিন তাদের এই ট্রল তাদেরকেসহ নিয়ে এবং তাতে উৎসাহ দেয়া লাইক-কমেন্ট-শেয়ারকারীদের নিয়ে মৃত্যুমুখে পতিত হবে।যারা বেঁচে থাকবে,তাদেরকেও স্বজন হারানোর নির্মম পরিণতি ভোগ করতে হবে।


যাইহোক,যেকোন ব্যাপারে এমন ট্রলবাজ আর গুজব প্রিয় এই জাতিকে শৃঙ্খলায় আনতে কঠিন পথ অনুসরণকে আমি সর্বদা সমর্থন করি।এই পথের আরো সহজ নাম হলো "মাইরের নাম বাবাজি"।একজন রাষ্ট্রবিজ্ঞানী একবার বলেছিলেন,মনুষ্য জাতিটাই এমন যে,আপনি যতক্ষণ তার গলায় শেকল পড়িয়ে রাখবেন ততক্ষণ সে ঠিক থাকবে,যেই শেকল খুলে দেবেন,বিশৃঙ্খলা শুরু করবে,তাই পৃথিবীতে এত অস্ত্রের ঝনঝনানি।


ইতোমধ্যেই হয়তো বুঝে গেছেন দেশে আর্মি নামানোর পক্ষে বলছি আমি।হ্যাঁ,কারণ এখন আর্মি নামানো হলে দেশে সবার নাকে বিপদের গন্ধটা ধরা পড়বে,অসচেতন মানুষগুলো সচেতন হবে।এই দুটো ফলাফল দেখতে পাবেনই,কারণ আর্মি গোঁয়ারদের শায়েস্তা করতে ওস্তাদ,আঙুল বাঁকা করে ঘি তুলতে জানে তারা।ইতালি এবং চীন স্বীকার করেছে যে ভাইরাসটিকে প্রথমে তারা গুরুত্ব না দেয়াতেই এই মৃত্যুর মিছিল দেখতে হয়েছে তাদের।তাহলে আমাদের দেশে সময় থাকতে অকর্মণ্য কিছু সরকারি আহাম্মকদের ব্যর্থতা ঢেকে আর্মি নামিয়ে দেশের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা যাবে না?অবশ্যই যাবে•••


বাংলাদেশ সেনাবাহিনী
বাংলাদেশ সেনাবাহিনী
সবচেয় বড় কথা হল সড়কে সেনা টহল এবং সব জায়গায় চেকপোস্ট দেখলে বাঙালি এমনিতেই ভড়কে যাবে।আর্মি নিয়োগ দিলে কাজ কতটুকু হবে সেটা সবাই জানেন,আমি শুধু এটাই বলতে চাই যে কিচ্ছু যদি নাও হয়,তবু জনগণ অন্তত ভয় পাবে,ঘরে থাকবে,নিষেধাজ্ঞা মেনে চলবে।

তবে এই সেনাবাহিনী মাঠে নামানো নিয়ে যাতে কোন রাজনৈতিক খেলা না চলে সেদিকে আমাদের চোখ কান খাড়া রাখতে হবে,তাহলে কিন্তু একটি শিশুও শান্তিতে আর ঘুমাতে পারবে না এই দেশে••

ANALYSING THE WORLD

Author & Editor

International Political Analyst and Content Writer.

0 comments:

Post a Comment

Please do not enter any spam link in the comment box.