-->

ইয়াবা vs জাতি

আমাদের সমাজের আপডেটেড মোস্ট পপুলার নেশার নাম হল ইয়াবা।অন্যান্য ড্রাগের তুলনায় এই ড্রাগটা খুব অল্প সময়েই আমাদের সমাজের যুবক/কিশোরদের মাঝে প্রিয় হয়ে ওঠছে

আমাদের সমাজের আপডেটেড মোস্ট পপুলার নেশার নাম হল ইয়াবা।অন্যান্য ড্রাগের তুলনায় এই ড্রাগটা খুব অল্প সময়েই আমাদের সমাজের যুবক/কিশোরদের মাঝে প্রিয় হয়ে ওঠছে।নেশাখোর যেহেতু আছে,ড্রাগও থাকবে।অভাব যেহেতু আছে,অপরাধও থাকবে•••

ইয়াবা vs জাতি


এই ইয়াবা আমাদের শিক্ষিত যুবক সমাজে খুব দ্রুতই প্রবেশ করছে।শুধু ছেলে নয়,ঢাকার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের মেয়েরাও সমানে ইয়াবা সেবন করছে।ইউটিউব ভর্তি ভিডিও রয়েছে মেয়েদের ইয়াবা সেবনের•••

বিশেষজ্ঞদের মতে,এই এডিকটেড মেয়েগুলো সংসার করতে ব্যর্থ হবে এবং বিকলাঙ্গ সন্তান জন্ম দেবে।
ভার্সিটি থেকে শুরু করে স্কুলের 7/8 এর ছেলেও ইয়াবা আসক্ত!যারা কিনা জাতির ভবিষ্যৎ কর্ণধার•••
বড়রা ছোটদেরকে বিভিন্নভাবে কাজে লাগিয়ে এই নেশায় জড়াচ্ছে নিজ স্বার্থে।ব্যবসায়ীরা স্কুল পড়ুয়া ছেলেদেরকে দিয়েই বিভিন্ন এলাকায় সাপ্লাই দিচ্ছে এই ড্রাগ।এটা দেখতে টেবলেটের মত হওয়ায় বহন করা সহজ এবং ঔষধ হিসেবেই খাওয়া শেখানো হচ্ছে ছোটদেরকে•••


আর সেই এডিকটেড কালকের দেখা ছোট ছেলেটাও দিন দিন ভয়ঙ্কর সব কাজে জড়িয়ে যেতে দেখছি•••
যে কিছুদিন আগেও আদর্শ ছেলে ছিল সে আজ মায়ের মুখে ঘুষি মেরে মাকে রক্তাক্ত করছে টাকার জন্যে!অথচ ছেলেটা পড়ে মাত্র ক্লাস এইটে•••
একটা ইয়াবা টেবলেট সম্ভবত 200 টাকা।ভেজালটা হয়ত 100 টাকা।একটা স্কুল ছাত্রকে তার মা সাধারণত 10/20 টাকাই দেবে।কিন্তু সেই ছেলের কয়েকটা ইয়াবা কিনতে দরকার দৈনিক 5/600!বাড়তি টাকার জন্যে সে সবকিছুই করতে পারে•••


এডিক্টেডরা মুখ ফস্কে একটা কথা বলে ফেলে..."নেশাখোরের মা বাপ নেই"।নেশাই হয় তাদের কাছে সবকিছু।অথচ অনেক মা বাবাই মনেকেরে যে যৌবনে একটু এসব করে ছেলেরা;তারা এটা বলে কেননা তারা জানেনা কয়েকদিন টাকা না দিলেই একদিন এই ছেলের হাতই তার গলায় ছুরি বসাবে•••
সবচেয়ে বেশি 'ভয়' তখনই লাগে যখন দেখা যায় দেশের সর্বোচ্চ শিক্ষাঙ্গন তথা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা ক্যাম্পাসে বসে ইয়াবা খায়!যারা আগামীদিনে দেশের গুরুত্বপূর্ণ পোস্টগুলোতে যাবে তাদের অধিকাংশই যদি নেশাখোর হয়,তাদের থেকে জাতি কী পাবে?এই ইয়াবা আমাদের পরিবার,সমাজ,রাজনীতি,এমনকি রাষ্ট্রকে পঙ্গু করে দিচ্ছে•••

কিছুদিন আগে প্রধানমন্ত্রী কক্সবাজারের জনসভায় সরাসরি বললেন যে,"আমি শুনেছি এখানকার মানুষ ইয়াবা আসক্ত হয়ে পড়ছে•••"
সভা শেষে তিনি সি-বীচে গিয়ে ইয়াবাসম্রাটের সাথে ছবি তুললেন;কী বুঝালেন তিনি?•••
টেকনাফে ইয়াবা এতই পপুলার হয়েছে যে মানুষ আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে গেলে সেখান থেকে আসার পথেও ইয়াবা নিয়ে আসে•••

ইয়াবা
ইয়াবা

কিছুদিন আগে চট্টগ্রামের ফিরিঙ্গিবাজারে এক বৃদ্ধের গোপনাঙ্গ থেকে দেড় হাজার পিস ইয়াবা পাওয়া গেছে!
এছাড়াও কয়েকদিন আগে একটা পেপারে বড় বড় অক্ষরে লেখা হয়েছে "ইয়াবা ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ছে জনপ্রতিনিধিরাও!!!"
এসব কি সরকার দেখছে না?এটা এখন নেশা কিংবা ব্যবসা বলে চালিয়ে দেয়া হলেও একসময় পেপারে আসবে "রোগ" হিসেবে;যে রোগের কারণে জাতি পঙ্গু হয়েগেছে•••
তখন আর কিছু করার থাকবে না•••

ANALYSING THE WORLD

Author & Editor

International Political Analyst and Content Writer.

0 comments:

Post a Comment

Please do not enter any spam link in the comment box.