-->

আইনস্টনের তত্ত্ব ভুল ছিল!

পাঞ্জাবের জলন্ধ্ররে অনুষ্ঠিত বার্ষিক ইন্ডিয়ান সায়েন্স কংগ্রেসর সম্মেলনে ভারতীয় বিজ্ঞানীরা আইজ্যাক নিউটন ও আইনস্টাইনের তত্ত্ব ভুল বলে দাবি করেছেন! তারা এর বিপরীতে হিন্দু পৌরাণিক কাহিনী ও ধর্মীয় চিন্তাধারাগুলোকে উল্লেখ করে সাইলেন্ট বোমা ফাটালেন যেন।

পাঞ্জাবের জলন্ধ্ররে অনুষ্ঠিত বার্ষিক ইন্ডিয়ান সায়েন্স কংগ্রেসর সম্মেলনে ভারতীয় বিজ্ঞানীরা আইজ্যাক নিউটন ও আইনস্টাইনের তত্ত্ব ভুল বলে দাবি করেছেন!
তারা এর বিপরীতে হিন্দু পৌরাণিক কাহিনী ও ধর্মীয় চিন্তাধারাগুলোকে উল্লেখ করে সাইলেন্ট বোমা ফাটালেন যেন।

আইনস্টনের তত্ত্ব ভুল ছিল!


অন্ধ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নাগেশ্বর জি রাও বলেন, হাজারো বছর আগেই ভারতে "স্টিম সেল" এর গবেষণা হয়েছে যা হিন্দু ধর্মীয় বইয়ে তিনে দেখেছেন এবং রামায়ণের প্রধান চরিত্র রাবণের ২৪ ধরনের বিমান ছিল যার অনেকগুলো অবতরণক্ষেত্র বর্তমান শ্রীলঙ্কায় অবস্থিত।


তামিলনাড়ু থেকে আশা আরেক বিজ্ঞানী কে. জি. কৃষ্ণান বলেন, আইজেক নিউটন ও আলবার্ট আইনস্টাইন দুইজনেই ভুল ছিলেন এবং বর্তমানে মধ্যাকর্ষণশক্তির নতুন নাম হওয়া উচিত "নরেন্দ্র মোদি তরঙ্গ"!

কিছুদিন একাধারে আমাদের নিজ দক্ষতা ও অবস্থা নিয়ে সিরিয়াস কিছু পোস্টের করার পর আজ নিয়ে এলাম 'সত্য বিনোদন'

আইনস্টনের তত্ত্ব ভুল ছিল!
আইনস্টনের তত্ত্ব ভুল ছিল!

এই খবরটি ভিটিও এডিটররা ভালভাবে এডিট করে ইউটিউবে নিজ চ্যানেলে পোস্ট করলে ভালই ভিউ হবে বলে মনেহয় আমার। আমার চ্যানেলে বিনোদনমূলক পোস্ট দেয়ার সুযোগ না থাকায় দিতে পারছি না। আর এডিটরদের পাশে নিজ অবস্থান জানান দিতে তাদের সাহায্যে আমি একটি ক্যাপশন ভেবেছি•••
আর তা হলো "আইনস্টাইনের তত্ত্ব ভুল ছিল!?তথ্যপ্রমাণসহকারে দেখতে ক্লিক করুন এইখানে!"


ভারতীয় বিজ্ঞানীদের এমন উদ্ভট কান্ড ঘটানোর জন্য যদিও "এ ধরনের মন্তব্য দুর্ভাগ্যজনক" বলে দুঃখ প্রকাশ করেছে আয়োজক সংস্থার সাধারন সম্পাদক; তবুও এর পেছনে কিছু কারণ রয়েছে•••


তারা সর্বদা সবকিছুতে নিজ দেশের স্বকীয়তা রক্ষা করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করে থাকেন। সেটা যেভাবেই হোক, অন্যের সম্পদের পোদ্দারি করতে নারাজ ভারত। এর ধারাবাহিকতায় ভারতের ঐতিহ্য ও নাম স্মরণ করিয়ে দিতে এমন বোমা ফাটালেন বিজ্ঞানীরা।


তাদের এই জেদের কারণেই তারা আজ মহাকাশে গবেষক পাঠায়, অত্যাধুনিক গাড়ি তৈরি করে, বিশ্বের অর্থনীতিতে নিজেদের অবস্থান জানান দেয়, চীনের মত দেশের সাথে সামরিক খাতে প্রতিযোগিতা করে। আর তাদের সাথে প্রতিযোগিতা করা দেশ পাকিস্তানের সার্বিক অবস্থানের কথা শুনলে/দেখলে অট্টহাসিতে ফেটে পড়ে মানুষ।


মহাকাশে বিভিন্ন যান পাঠানোয় এবং মহাকাশ গবেষণায় সর্বদা ভারতের নাম দেখা যায়, এদিক থেকে তারা রাশিয়ার সাথে প্রতিযোগিতা করার কথা চিন্তা করে। আর পাকিস্তানের নাম গবেষণা, অর্থনীতি, রাজনৈতিক সফলতা, কোন খাতে টর্চ দিয়ে খুঁজলেও পাওয়া যায় না। আমি তাদেরকে ছোট করছি না।পাকিস্তানের অনেক কিছু আছে যা গর্ব করার মত, কিন্তু তাদের জাতিয়তাবোধের স্বল্পতা এবং অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণে তারা আজ এই অবস্থানে চলে গেছে•••


উগ্র জাতিয়তাবোধ কখনো সুফল আনে না, আবার সাধারণ জাতিয়তাবোধের অভাব হলেও উন্নতি হয় না। দেশের সব শ্রেণীর মানুষ যদি বিশ্বে নিজ দেশের নাম জানিয়ে দেয়ার জন্য কাজ করে তাহলে কখনো দেশটি পিছিয়ে থাকবে না•••

ANALYSING THE WORLD

Author & Editor

International Political Analyst and Content Writer.

0 comments:

Post a Comment

Please do not enter any spam link in the comment box.